অমরনাথ তীর্থযাত্রীদের আতঙ্কের কারণ হতে পারে পাক জঙ্গি ও বিচ্ছিন্নতাবাদীরা

kashmir-2অমরনাথ তীর্থযাত্রা শুরু হচ্ছে আগামী ২৯ জুন থেকে। কিন্তু সেই তীর্থযাত্রায় আতঙ্ক ছড়াতে পারে কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদীরাও। এমনই আশঙ্কা করা হচ্ছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক দফতর থেকে।

তীর্থযাত্রীদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে যাত্রাপথে ২৭,৯০০ নিরাপত্তা রক্ষী মোতায়েন করা হবে। মঙ্গলবার ৪০ দিনের এই তীর্থযাত্রা নিয়ে বৈঠকের পর জানান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের উপদেষ্টা অশোক প্রসাদ। সরাষ্ট্র সচিব রাজীব মেহরিশির সভাপতিত্বে এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রক ও ভূবিজ্ঞান মন্ত্রকের উচ্চপদস্থ কর্তারা, সিআরপিএফ, বিএসএফ,আইটিবিপি এবং এসএসবির ডিজি, অমরনাথ মন্দির কর্তৃপক্ষ, জম্মু কাশ্মীর প্রধান সচিব বি বি ব্যাস এবং ডিজিপি এসপি বৈদ।

জঙ্গি হামলার আশঙ্কা থাকলেও, বিচ্ছিন্নতাবাদীদের তরফ থেকে কোনও অশান্তি তৈরি হতে পারে কিনা এই প্রসঙ্গে বৈঠকে অশোক প্রসাদ জানান, “জঙ্গি ও বিচ্ছিন্নতাবাদী দুটিই আতঙ্ক তৈরি করতে পারে। এর জন্য কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।”

সৌজন্য:Kolkata24x7

হিন্দু ধর্মের অপমান, এই ‘কুকুরকে’ থাপ্পড় মারছেন না কেন? ওমের অশ্লীল কীর্তিতে ক্ষোভ মিকার

om-swami-topless-modelঈশ্বর নাকি তাঁর মনোবাসনা পূর্ণ করেছেন l আর তাই সোশ্যাল সাইটে সেই ইচ্ছে পূরণের কথা প্রকাশ্যে জানিয়েছিলেন বলিউডের জনপ্রিয় গায়ক মিকা সিং l কি বিষয়ে জানেন?

বিগ বসের প্রাক্তন প্রতিযোগী স্বামী ওম-এর কীর্তি নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই বেশ চোটে ছিলেন মিকা l বিশেষ করে যখন বিকিনি পরা মডেলকে কোলে বসিয়ে যোগ করছিলেন ওমজি, ঠিক সেই ভিডিও চোখে পড়ার পর lসোশ্যাল সাইটে স্বামী ওম-এর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন মিকা সিং l বলেন, হিন্দু ধর্মকে অপমান করছেন ওম l এমনকী, কেন কেউ ওই ‘কুকুর’কে ধরে থাপ্পড় মারছে না, সে বিষয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি l

Mika_Singhএরপরই দিল্লিতে এক অনুষ্ঠানে হাজির হওয়ার পর মারধর খান স্বামী ওম l দিল্লির ওই অনুষ্ঠানে প্রথমে এক মহিলা ওমকে লক্ষ্য করে চিত্কার জুড়ে দেন l এরপর সেখান থেকে চম্পট দিতে গেলেই, গণধোলাই দেওয়া হয় ওমকে l মারের চোটে ওমের মাথা থেকে খোসে পড়ে তাঁর নকল চুলও l ওই ঘটনার পরই বিষয়টি ভাইরাল হয়ে যায় l

ওমজিকে মারধরের ওই ভিডিও এরপর মিকা সিং-এর সোশ্যাল হ্যান্ডেলে গিয়ে রিট্যুইট করেন তাঁর এক ভক্ত l আর এরপরই মিকা জানান, এতদিনে তাঁর ইচ্ছে পূরণ হয়েছে l ঈশ্বর তাঁর কথা শুনেছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি l

সৌজন্য : india.com

চার মাস পর অপহৃত হিন্দু কিশোরী উদ্ধার

1

রিংকু দেবনাথ (১২)

সিলেটে এক হিন্দু কিশোরীকে গত চার মাস আগে জোরপূর্বক অপহরণ করা হয়। অবশেষে দীর্ঘ ৪ মাস পর গত ১৭ই মে, বুধবার রাতে মৌলভীবাজার বিটুরাই থেকে রাত ৩টার সময় দক্ষিণ সুরমা থানার এসআই রিপটন পুরকায়স্থ বিশেষ অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করে। মেয়েটির নাম রিংকু দেবনাথ (১২)।
গত ১৬ জানুয়ারী সকাল সাড়ে ১০ টায় সাউথ সুরমা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে থেকে জোরপূর্বক অপহরণ করে। অপহরণকারী হল মোঃ জাহাঙ্গীর। ঘটনার দেড় মাস পর কিশোরীর পিতা সুদেব দেবনাথ ৫ মার্চ দক্ষিণ সুরমা থানায় একটি জিডি করা হয়। যাহার নং ২২৯ তারিখ ০৫/০৩/২০১৭ ইং।গত ২ মে কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে ৪ জনকে আসামী করে থানায় আরেকটি অপহরণ মামলা করেন। মামলা নং ০১/৫৯,তারিখ ০২/০৫/২০১৭ইং।
আসামীদের নাম মোঃ জাহাঙ্গীর, মোঃ আলমগির, সুফিয়া বেগম, মোঃ নুফুর মিয়া। এ ঘটনায় ২ নং আসামী মোঃ আলমগির কে পুলিশ গ্রেফতার করে। এর পর মালেক ও হাসিম কে আটক করা হয়। সর্বশেষ এসএমপির কমিশনারর নির্দেশ পুলিশ কিশোরীকে উদ্ধার করে।

তালাক পাওয়া মুসলিম গৃহবধূর আর্জি ধর্মান্তরিত হব নয়তো আত্মহত্যা করব

2052017তিন তালাকের বিরুদ্ধে ন্যায়বিচার চেয়ে মোদীর সাহা‌য্য চাইলেন উত্তরাখণ্ডের এক গৃহবধূ। শামিম জাহান নামে উত্তরাখণ্ডের ওই মহিলা থাকেন উধম সিং নগরে। বেশ কয়েক বছর আগে তাঁর স্বামী তাঁকে তালাক দিয়েছেন। ওই তালাক পাওয়ার পরই তিনি ওই প্রথার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। সংবাদ মাধ্যমে তিনি জানিয়েছেন, ওই তালাকের বিরুদ্ধে ন্যায় চাই। তা না পেলে হয় তিনি আত্মহত্যা করবেন নয়তো তিনি ধর্মান্তরিত হবেন। এনিয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীর সাহা‌য্য চেয়েছেন।

বুধবার সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত এক ভিডিওয় শামিম দাবি করেছেন, তিন তালাক পাওয়ার পর এখন আমার সামনে দুটি রাস্তা খোলা। আমাকে হয় হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করতে হবে নয়তো আত্মহত্যা করতে হবে। অনেক কষ্টে রয়েছি। এনিয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রী মোদী ও সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন। চাঞ্চল্যকর বিষয় হল গদরপুর থানার মধ্যেই শামিমের স্বামী আসিফ তাঁকে তালাক দিয়েছেন।বছর বারো আগে আসিফের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল শামিমের। বিয়ের চার বছরের মাথায় আসিফ তাঁকে একবার তালাক দেন। আত্মীয়স্বজনের মধ্যস্থতার দুজনের ফের  হলেও আসিফ তার ওপরে ফের অত্যচার করতে শুরু করে। এক সময় অত্যাচারের সীমা বাড়ায় শামিম গদরপুর থানায় এনিয়ে অভি‌যোগ করেন। আর সেখানেই তাকে তিন তালাক দেয় আসিফ। গত আট বছর সেই ‌যন্ত্রণা নিয়ে ঘুরছেন শামিম।

সূত্র : india.com

মালদার গাজলে নিজেদের খাবারের হোটেলে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা

Pakistani-doctor-accused-of-molesting-16-year-old-who-came-to-his-clinic-indialivetodayগ্রাম জোড়গাছি, থানা গাজোল, জেলা মালদা : বুলি চৌধুরী হালদার ও  তার স্বামী আশীষ হালদারের একটি ছোট্ট খাবারের হোটেল আছে এন.এইচ ৮১ এ জোড়গাছি গ্রাম চৌরঙ্গী মোড়ে। গত১৬ই মে  আনুমানিক  ৪.৩০ টের সময় বুলি  চৌধুরী হালদার হোটেলে একাই ছিলেন (ওনার  স্বামী ওই সময়ে অনুপস্থিত ছিলেন ), হোটেলেও  অন্য  কোনো  লোকজন  ছিল  না। ঠিক এই  সময়ে নেজম্মুদ্দিন আলী (বয়স ৫০, গ্রাম -কয়লাবাথান, পোস্ট -ভাদো ,থানা – রতুয়া, জেলা -মালদা ) আসে এবং খাবার চায়। বুলি চৌধুরী হালদার খাবার প্রস্তূত করার জন্য  ভেতরে যায় ।IMG-20170517-WA0017

এই সময় নেজম্মুদ্দিন পেছন থেকে তার মুখ চেপে ধরে এবং তাকে জাপ্টে ধরে । তার শরীরের গোপনস্থানে হাত দেয় এবং তাকে  ধর্ষণ  করার চেষ্টা করে । বুলি  চৌধুরী হালদারের কোনোক্রমে আর্তনাদ করে ও স্থানীয় লোকজন জোড়ো হয় এবং তাকে উদ্ধার করে ।

তিন তালাকের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টে যুক্তি খাড়া করল মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড

তিন তালাক হল একটি বহু প্রচীন প্রথা। প্রায় ১ হাজার ৪০০ বছর ধরে যথাযোগ্য বিশ্বাসের সঙ্গে এই প্রথা পালন করে আসছেন মুসলিমরা। তিন তালাকের বৈধতার স্বপক্ষে সুপ্রিম কোর্টে এই যুক্তি খাড়া করল অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড। মঙ্গলবার বোর্ডের আইনজীবী তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী কবিল সিবাল সওয়াল করতে গিয়ে বলেছেন, মুসলিমদের এই প্রাচীন প্রথাকে কখনই ইসলাম-বিরোধী বা অ-মুসলিম বলা যুক্তিযুক্ত নয়। এরই পাশাপাশি মুসলিমদের এই বিশ্বাসের সঙ্গে হিন্দুদের পূজিত দেবতা রামের জন্মের তুলনাও টেনেছেন তিনি। বলেছেন, অযোধ্যায় রাম জন্মগ্রহণ করেছিলেন বলে হিন্দুরা বিশ্বাস করেন। তা হলে কেনই বা মুসলিমদের বিশ্বাসকে ঘিরে সাংবিধানিক নৈতিকতার প্রশ্ন উঠবে? এদিকে তিন তালাক নিয়ে সর্বোচ্চ আদালতের রায়ের দিকে তাকিয়ে রয়েছে অভিন্ন দেওয়ানি বিধি তৈরিতে গঠিত আইনি কমিশন। এই সংক্রান্ত বিভিন্ন দিক খতিয়ে দেখে একটি পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট তৈরির কথা কমিশনের। সেই কাজও কমিশন শুরু করে দিয়েছিল। তার মাঝেই তিন তালাকের বৈধতা নিয়ে শুনানি শুরু হয় সুপ্রিম কোর্টে। সেই রায়ের দিকে তাকিয়ে রিপোর্ট তৈরিতে এখন ‘ধীরে চলো’ নীতি নিয়ে চলতে চায় কমিশন।

tripletalaq

চিত্রটি প্রতিকী গুগল ইমেজ থেকে সংগৃহীত

সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ বিচারপতিকে নিয়ে গঠিত সাংবিধানিক বেঞ্চে তিন তালাকের বৈধতা নিয়ে শুনানি চলছে। বেঞ্চের নেতৃত্বে রয়েছেন প্রধান বিচারপতি জে এস খেহর। এদিন ছিল চতুর্থ দিনের শুনানি। গতকাল কেন্দ্রের তরফে অ্যাটর্নি জেনারেল মুকুল রোহাতগি শীর্ষ আদালতকে জানিয়েছিলেন, তিন তালাকের সঙ্গে ইসলামের কোনও সম্পর্ক নেই। কোনও ব্যক্তিগত আইন সংবিধানকে এড়িয়ে চলতে পারে না। কেন্দ্রের এই যুক্তি খণ্ডন করতে এদিন মাঠে নামেন সিবাল। সওয়ালে তিনি বলেন, ৬৩৭ খ্রীষ্টাব্দ থেকে তিন তালাক প্রথা চলে আসছে। এবং এই প্রথার সঙ্গে দীর্ঘ ১ হাজার ৪০০ বছরের বিশ্বাস জড়িয়ে রয়েছে। ফলে তিন তালাককে ইসলাম বিরোধী বলার আমরা কে? বেঞ্চের কাছে জানতে চান সিবাল।
সেই সঙ্গে মুসলিমদের বিবাহ ব্যবস্থার পদ্ধতি নিয়েও সুপ্রিম কোর্টে ব্যাখ্যা দিয়েছেন প্রাক্তন এই আইনমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, মুসলিম সম্প্রদায়ের বিবাহ হল দুই প্রাপ্ত বয়স্ক ছেলেমেয়ের সম্মতিক্রমে একটা পাকা বন্দোবস্ত। যার পুরো বিষয়টি নিকাহনামায় লিপিবদ্ধ থাকে। বিবাহ বিচ্ছেদও একই বন্দোবস্তের মধ্যেই হয়ে থাকে। ফলত, মুসলিমদের এই বিবাহ ব্যবস্থা নিয়ে অন্যদের সমস্যা হবে কেন?
গতকাল শুনানিতে সুপ্রিম কোর্টে কেন্দ্র জানিয়েছিল, তিন তালাক বাতিল হলে কেন্দ্র মুসলিমদের বিবাহ বিচ্ছেদের ক্ষেত্রে নতুন আইন আনবে। এদিন পালটা সওয়ালে সিবাল বলেছেন, ধরা যাক সর্বোচ্চ আদালত তিন তালাক বাতিলের পক্ষে রায় দিল। কিন্তু নতুন আইন আনার ক্ষেত্রে সংসদে যদি আপত্তি ওঠে, তখন কী হবে? এই বিষয়টিও বেঞ্চকে ভেবে দেখার আরজি রেখেছেন সিবাল।

সৌজন্য : বৰ্তমান

পাক অনুপ্রবেশকারীকে গুলি করে মারল বিএসএফ

অনুপ্রবেশের ছক বানচাল করে দিল কেন্দ্রীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী৷ পাঞ্জাবের গুরুদাসপুরে ভারিয়াল পোস্টের কাছে আজ ভোর সাড়ে চারটে নাগাদ এক পাক অনুপ্রবেশকারীকে গুলিতে ঝাঁজরা করে দিল বিএসএফ-এর ১২০ ব্যাটেলিয়ন৷ বিএসএফ এক বিবৃতি দিয়ে এই কথা জানিয়েছে৷
গত কয়েকদিন ধরেই তপ্ত হয়ে রয়েছে নিয়ন্ত্রণরেখার আশেপাশের এলাকা তপ্ত হয়ে রয়েছে৷ গতকালও, উত্তর কাশ্মীরের কুপওয়ারায় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর গুলিতে দুই লস্কর জঙ্গি খতম হয়েছে৷ পাক রেঞ্জার্স ও জঙ্গিদের জোড়া নিশানায় জম্মু ও কাশ্মীর৷ তপ্ত পরিস্থিতি উপত্যকায়৷ রবিবার ভোরে কুপওয়ারার ভগৎপুরা এলাকায় অভিযান চালায় কেন্দ্রীয় নিরাপত্তারক্ষীরা৷ জঙ্গিরা নিরাপত্তারক্ষীদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে শুরু করে৷ পাল্টা আক্রমণ করেন সীমান্তরক্ষীরা৷ ঘটনাস্থলেই নিকেশ হয় দুই জঙ্গি৷ সংঘর্ষে কোনও সাধারণ মানুষ হতাহত হননি৷ ঘটনাস্থল থেকে দু’টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার হয়েছে৷ গোপন ডেরায় আর কোনও জঙ্গি রয়েছে কি না, তা সুনিশ্চিত করতেই জোর তল্লাশি শুরু হয়েছে৷

bsf1

সীমান্তে টহলরত জওয়ানেরা

এই পরিস্থিতির মধ্যে রবিবার ভোর থেকেই ফের সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে রাজৌরি জেলার নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর বিভিন্ন এলাকায় গুলি ও মর্টার ছুড়তে শুরু করে পাক রেঞ্জার্স৷ বাদ যায়নি সীমান্তবর্তী গ্রামগুলিও৷ কোনওরকম উস্কানি ছাড়াই আবারও স্বয়ংক্রিয় আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে হামলা চালায় পাক সেনারা৷ ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর জওয়ানরা পাল্টা জবাব দেন৷ পাক হামলায় কেউ হতাহত হননি৷ তবে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে রাজৌরির বেশ কিছু ঘর-বাড়ি৷ এ নিয়ে গত কয়েকদিনে অন্তত চার বার সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে গোলাবর্ষণ করল পাক সেনার৷ শনিবারই রাজৌরির নৌশেরা সেক্টরে মর্টার আক্রমণে এক শিশুকন্যা-সহ দু’জন মারা যান৷ গুরুতর জখম হন তিনজন৷ এ মাসের শুরুতেই পুঞ্চে পাক-বর্বরতার ক্ষতচিহ্ন এখনও রয়েছে৷
পাক গোলার আতঙ্কে প্রাণ বাঁচাতে ইতিমধ্যে রাজৌরির প্রায় ১০০০ জন নিরীহ গ্রামবাসীকে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ নিজেদের ভবিষ্যত্‍ নিয়ে কার্যত দুশ্চিন্তায় রয়েছে কয়েক হাজার পড়ুয়া৷ কারণ সুরক্ষার জন্যই ৮৭টি স্কুল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷ এর মধ্যে আগেই রাজৌরি জেলার নৌশেরা সেক্টরের ৫১টি স্কুলকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷ রাজৌরির ডেপুটি কমিশনার শাহিদ ইকবাল চৌধুরি জানিয়েছেন, নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর গ্রামগুলি লক্ষ্য করে পাক সেনারা ৮২ বি ও ১২০ এমএম মর্টার ছুড়ছে৷ ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীও উপযুক্ত জবাব দিয়েছে৷ রবিবার মাঞ্জাকোট এলাকায় মর্টার ছুড়তে থাকে পাক রেঞ্জাররা৷
সন্ত্রস্ত মানুষজন যাতে নিরাপদে থাকতে পারে সেজন্য প্রশাসনের তরফে রাজৌরিতে বেশ কয়েকটি ক্যাম্প গড়ে তোলা হয়েছে৷ সেখানে পর্যাপ্ত পানীয় জল, খাবারের বন্দোবস্ত করা হয়েছে বলে প্রশাসনের এক পদস্থ আধিকারিক জানিয়েছেন৷ শিবিরগুলিতে আতঙ্কিত গ্রামবাসীদের আর্থিকভাবে সাহায্যের ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ আহতদের যাতে দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা যায়, সেজন্য রাজৌরিতে ছ’টি অ্যাম্বুল্যান্স রয়েছে৷ নৌশেরায় রয়েছে একটি মেডিক্যাল ইউনিট৷ পরিস্থিতির দিকে নজর রাখতে তৈরি করা হয়েছে একটি কন্ট্রোল রুম৷